শোভাকল

এই ভাত দেখলে ভয় লাগে এখন!
এই ভাতের জন্যই কতোবিধ কৌশল!

মানুষের ক্ষুধা জীবনেরও উর্ধ্বে,
নিশ্বাস এখানে দুই টাকার হলুদ কোন খাম!

ভাত যে কি নিদারুণ জরুরি অভিশাপ,
বোঝার পরে আর থালার ভেতর
আঙুল রাখতে পারিনি, একি কোন পাপ!

পেটের দিকে তাকালেই দেখি উচ্ছৃঙ্খল রাক্ষস।

রাত্রি নিদে মানুষের সাথে আঁতাতে ক্ষুধা যে
ঈশ্বর হয়ে উঠছে, এখন প্রকৃত ঈশ্বরের কি হবে!

যদি মুক্তি চাই, চাই শোভাকলের জীবন-
শোষণকে কুর্নিশে কড়জোড়ে দাঁড়াতেই হবে:

অথচ, জন্মেই: আঁতুরঘরে সবার অলক্ষ্যে
গলায় জড়িয়ে নিয়েছিলাম গ্লানির মালা!
তবুও নতশিরে-কড়জোড়ে-নির্যাতিত প্রতিটা মুহূর্ত!

এইসব বেঁচে থাকাই বোধহয় সর্বনিকৃষ্ট মৃত্যুদণ্ড;
যা মানুষ জন্মানোর সাথে সাথেই লেখা হয়ে যায়!

(Visited 23 times, 1 visits today)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *